logo
আরবি ভাষা শিক্ষক প্রশিক্ষণ কোর্স - নিবন্ধন করুন এখনি! x
blog

ইলাননূর ক্যালিগ্রাফি পেইন্টিং কোর্স; সুস্থ সংস্কৃতি বিকাশের প্রয়াস

ইংরেজি ক্যালিগ্রাফি শব্দটি এসেছে গ্রীক শব্দ ক্যালিগ্রাফিয়া থেকে; গ্রীক শব্দ ক্যালোস যা অর্থ সুন্দর ও ‘গ্রাফেইন’ যা অর্থা লেখা-এর মিলিত রূপ ক্যালিগ্রাফিয়া অর্থাৎ সুন্দর লেখা। ক্যালিগ্রাফি শিল্পকলার অতি প্রাচীন একটি শাখা। পৃথিবীর বিভিন্ন অঞ্চলে বিভিন্ন ভাষা ও ধর্মের মানুষের মধ্যে ক্যালিগ্রাফি শিল্পের চর্চা আছে।  আরবী, বাংলা, ইংরেজি, চাইনিজ ও জাপানীসহ পৃথিবীর বিভিন্ন ভাষার হরফে ক্যালিগ্রাফি লেখার প্রচলন আছে। 

আরবিতে ক্যালিগ্রাফি শিল্পকে বলা হয় ‘ফান্নুল খত।’ ইসলামপূর্ব যুগ থেকেই আরবি হরফে ক্যালিগ্রাফি করার প্রচলন ছিলো। ইসলাম পরবর্তী যুগে মুসলিম ক্যালিগ্রাফি শিল্পীরা আরবী ও ইসলামী ক্যালিগ্রাফিকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যান। মুসলিম যুগে আরবী ক্যালিগ্রাফি তার সৌন্দর্য ও শিল্পসুষমায় বিশেষ খ্যাতি লাভ করে।

ক্যালিগ্রাফি যেহেতু প্রাণীর ছবি অংকনের মতো কোনো রকম পাপ ও সমস্যামুক্ত একটা আর্ট তাই মুসলমানদের মধ্যে ক্যালিগ্রাফি ব্যাপকভাবে গ্রহণযোগ্য ও জনপ্রিয় হয়। কুরআনের প্রচ্ছদ, মসজিদের দেয়াল, বাড়ির দরজা ও ছাদ, ইসলামী বই পুস্তকের অলংকরণসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বরকত ও সৌন্দর্যবর্ধনের উদ্দেশ্যে আরবি ক্যালিগ্রাফি ব্যবহৃত হয়।
 

এই সময়ে ক্যালিগ্রাফি কেন শিখবেন?

ইলাননূর ইন্সটিটিউট ক্যালিগ্রাফি কোর্সের ১ম ব্যাচের কয়েকজন প্রশিক্ষণার্থী


১. অপসংস্কৃতির পরিবর্তে সুস্থ সংস্কৃতির চর্চা

পবিত্র কাবা ঘরের দিকে তাকালে সোনালী অক্ষরের ক্যালিগ্রাফি আমাদের দৃষ্টি ও হৃদয় কাড়ে। ক্যালিগ্রাফি পেইন্টং মুসলমানদের সুস্থ ও সুন্দর সংস্কৃতির অংশ, যা আমরা আমাদের সমাজে প্রচলিত অপসংস্কৃতির বিকল্প হিসেবে গ্রহণ করতে পারি এবং মানুষের সামনে তুলে ধরতে পারি।

২. শিল্পের মাধ্যমে স্রষ্টার বাণী মানুষের কাছে পৌঁছানোর সুযোগ

ক্যালিগ্রাফি করার মাধ্যমে নিজের শৈল্পিক মেধা ও মননকে আল্লাহ্‌র বাণী প্রকাশে নিয়োজিত করার সুযোগ পাওয়া যায়। নিয়ত বিশুদ্ধ থাকলে এটা আল্লাহ্‌র সন্তুষ্টি অর্জনের মাধ্যম হতে পারে।

৩. সৃজনশীল মেধার বিকাশ

আমাদের সন্তানদের সৃজনশীল মেধা বিকাশে ক্যলিগ্রাফির চর্চা সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে, ছোট থেকেই তাদের মাঝে শৈল্পিক মনের বিকাশ ঘটাতে পারে।

৪. পেশা হিসেবে গ্রহণ

মুসলিম সমাজে ক্যলিগ্রাফি পেইন্টং এর চাহিদা প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে, ভালো বাজার সৃষ্টি হচ্ছে ক্যালিগ্রাফির, তাই পেশা হিসেবেও ক্যালিগ্রাফি পেইন্টিংয়ের কদর বাড়ছে।

৫. অবসরে সৃজনশীল বিনোদন

অবসরে রংতুলির আচড়ে বিমূর্ত সৃজনশীল সৃষ্টির আনন্দ আপনাকে দেবে ক্যালিগ্রাফি চর্চা।

ইলাননূর ইন্সটিটিউট পরিচালিত ক্যালিগ্রাফি কোর্সে যা শেখানো হয়


১। খত্ব: দুই পেন্সিল ব্যবহার করে কীভাবে আরবি অক্ষর লেখা ও ক্যানভাসে স্কেচ করা যায়। আরবি ২৯ অক্ষরকে সুলুস ও সুম্বলি ফন্টে হাতে-কলমে শেখান হয়। 

২। কম্পোজিশন তৈরি: আরবি শব্দ, যিকির, দু’য়া কুরআনের আয়াত এবং হাদিসকে কীভাবে নান্দনিকভাবে সাজিয়ে পেইন্টিং করা যায়।

৩। ক্যানভাস প্রস্তুতকরণ ও কালার মিক্সিং: একটি কম্পোজিশনকে ক্যানভাসে ফুটিয়ে তোলার জন্য, পেইন্টিং শুরুর আগে কীভাবে ক্যানভাস প্রস্তুত করতে হয় এবং ক্যানভাসে কালার মিক্সিং করতে হয়, তা শেখান হয়।

৪। পেইন্টিং: প্রত্যেকটি রঙেরই আবেগ-অনুভূতি প্রকাশের স্বকীয় বৈশিষ্ট্য রয়েছে। রঙ নির্বাচন এবং দুই বা ততোধিক রঙের মিশ্রণে নতুন রঙ সৃষ্টি এবং দৃষ্টিনন্দন পেইন্টং সৃষ্টিতে রঙের ব্যাবহার শেখানো হয়। হবে। ক্লাস সংখ্যা:

৫। এ্যক্রলিক, ওয়াটার কালার, শ্যাডো এবং জিওমেট্রিক প্যাটার্নের ব্যবহারও শেখানো হয়।

ইলাননূর ক্যালিগ্রাফি কোর্সের প্রশিক্ষণার্থীরা যে সুবিধাগুলো পান


- ক্যাম্পাস ক্লাস মিস করলেও অনলাইনে যোগদানের সুবিধা

- ক্যালিগ্রাফির জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি সুলভে সরবরাহ

- বাসায় অনুশীলনের সময় WhatsApp-এ শিক্ষক গাইড

- কোর্স শেষে সার্টিফিকেট এবং এ কোর্সে সব সময় ফ্রি একসেস

- ব্যাসিক কোর্সের পর ইন্টারমিডিয়েট কোর্সে ভর্তি হওয়ার সুবিধা

- আর্ট এক্সিবিশনে অংশগ্রহণ

ক্যালিগ্রাফি প্রশিক্ষণে ইলাননূর ইন্সটিটিউটের সাফল্য


ইলাননূর ইন্সটিটিউট এ পর্যন্ত তিনটি ব্যাচে অর্ধশতাধিক প্রশিক্ষাণার্থীকে ক্যালিগ্রাফি পেইন্টিংয়ের প্রশিক্ষণ দিয়েছে। তাদের অনেকেই জাতীয় পর্যায়ে বিভিন্ন ক্যালিগ্রাফি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে নিজেদের প্রতিভার সাক্ষর রেখেছেন।


গত ৭ই মার্চ ইলাননূর ইন্সটিটিউট ক্যালিগ্রাফি পেইন্টিং ব্যাসিক কোর্স সমাপনকারী প্রশিক্ষণার্থীদের জন্য সার্টিফিকেট বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খ্যাতিমান ক্যালিগ্রাফার এম এম আর্ট ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জনাব মাহবুব মুর্শিদ।


ওই অনুষ্ঠানে ক্যালিগ্রাফি ব্যাসিক কোর্সের ব্যাচ-১ এর ১০ জন ও ব্যাচ-২ এর ১৫ জন সর্বমোট ২৫ জন নবীন ক্যালিগ্রাফারকে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

ইলাননূর ইন্সটিটিউটে ক্যালিগ্রাফি প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন খ্যাতিমান তরুণ ক্যালিগ্রাফার হাফেজ শহিদুল ইসলাম। তিনি বাংলাদেশের প্রখ্যাত ক্যালিগ্রাফি পেইন্টিং শিল্পী মাহবুব মুর্শিদের এম এম আর্ট ফাউন্ডেশনের সদস্য। ২০২০ সালে মুসলিম দেশগুলোর সর্ববৃহৎ সহযোগিতা সংস্থা ওআইসি আয়োজিত ক্যালিগ্রাফি প্রতিযোগিতায় তার ক্যালিগ্রাফি শীর্ষ দশে স্থান পায়। দক্ষিণ এশিয়ায় ওআইসির তালিকাভুক্ত শীর্ষ দশ ক্যালিগ্রাফারের মধ্যে তিনি অন্যতম। আমেরিকান সীরাত ফ্যাস্টিভালসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তার শিল্পকর্ম প্রদর্শিত হয়েছে।


এ ছাড়া দেশের ভেতরেও বিভিন্ন এক্সিবিশনে তার ক্যালিগ্রাফি প্রদর্শিত ও পুরস্কৃত হয়েছে। শিল্পকলা একাডেমি তার একটি ক্যালিগ্রাফি তাদের আর্কাইভে যুক্ত করেছে।

 

ইলাননূর ক্যালিগ্রাফি পেইন্টিং কোর্স একটিভিটি শোকেস